তোমরা চানাককেল্লার সময় আমাদের সাথে ছিলে, আমরা কাশ্মীরের ব‍্যপারে তোমাদের সাথে থাকবঃ পাকিস্তানকে তুরস্ক

ইসলামাবাদ ও ইস্তাম্বুল|


কাশ্মীরের বিষয়ে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করতে চলেছে তুরস্ক। এই বিষয়ে পাকিস্তানের পাশে থাকার বার্তা দিয়েছে পাকিস্তানের ভ্রাতৃপ্রতিম দেশ তুরস্ক। এসংবাদ জানিয়েছে আনাদোলু এজেন্সি ও রজব তৈয়‍্যব এরদোগান উর্দূ (RTE Urdu)।

কাশ্মিরের মুক্তি ও স্বাধীনতার বিষয়ে পাকিস্তানের পাশে থাকার কথা আবারো ঘোষণা দিয়েছে তুরস্ক। গতকাল অর্থাৎ সোমবার কাশ্মীরের বিষয়ে পাকিস্তান ও তুরস্কের যৌথ উদ্যোগে একটি আন্তর্জাতিক অনলাইন কনফারেন্স অনুষ্ঠিত হয়। এই কনফারেন্সে তুরস্ক তার অবস্থান স্পষ্ট করেছে।

সোমবার এই সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন আন্তর্জাতিক অঙ্গনের গুরুত্বপূর্ণ ব‍্যক্তিত্বরা। এই সম্মেলনে ভারত কর্তৃক কাশ্মীরের ডেমোগ্রাফী পরিবর্তনের ষড়যন্ত্র রুখে দেওয়ার আহ্বান জানান হয়েছে। এদিন পাকিস্তানের ফেডারেল মিনিস্টার ফর ইনফরমেশন শিবলী ফারাজ তাঁর বক্তব্যে বলেন,

” ভারতকে ভারত কর্তৃক দখলকৃত কাশ্মীরের ডেমোগ্রাফী ও তার স্বাতন্ত্র্য পরিচয় পরিবর্তন করা থেকে রুখতে রাষ্ট্রসংঘকে সত্বর পদক্ষেপ নিতে হবে।”

তিনি আন্তর্জাতিক মহলকে ভারতের আন্তর্জাতিক আইন ভঙ্গের জন্য দায়ী করার আহ্বান জানিয়েছেন। এদিকে এদিন আজাদ কাশ্মীরের প্রেসিডেন্ট সরদার মাস’ঊদ খান ভারতকে বয়কট ও অবরোধ আন্দোলনের আহ্বান জানিয়েছেন। তিনি ওয়াইসিতে মুসলিম বিশ্বকে ভারতের হারাম মাংস ও হারাম পণ‍্য আমদানি বয়কটের আহ্বান জানিয়েছিলেন বলে এদিন জানান।

তুরস্কের পক্ষ থেকে তুরস্কের আইনবিদ ও পার্লামেন্টারিয়ান আলী শাহীন রাষ্ট্রসংঘের বিভিন্ন রেজুলেশনের কথা উল্লেখ করে কাশ্মীর ইস‍্যু সমাধানের উপর জোর দিয়েছেন। তিনি পাকিস্তান ইস্যুতে পাকিস্তানের পাশে থাকার বার্তা দিয়েছেন।

তিনি বলেন, ” শ্রীণগরের শিশুরা হল আঙ্কারার শিশু, কাশ্মীর উপত্যকার মহিলারা হলেন আনাতোলিয়ার মহিলা, কাশ্মীরী মায়েদের ক্রন্দন হল তুর্কি মায়েদের ক্রন্দন।”

শাহিন বলেন, “কাশ্মীর হল আমাদের সমসাময়িক চানাক কেল্লা ও দার্দানেলস। তোমরা সেদিন চানাক কেল্লাতে আমাদের সাথে ছিলে। আজ আমরা কাশ্মীরে তোমাদের সাথে আছি।”

উল্লেখ্যঃ তুরস্ক কাশ্মীরের ব‍্যপারে কখনো আপোষ করে নি। তুরস্ক ও তুরস্কের বিভিন্ন সংগঠন ইতিমধ্যে কাশ্মীরের মুক্তির জন্য কাজ শুরু করেছে।


© টি আর টি বাংলা ডেস্ক