যুদ্ধবিরতি গ্রহণযোগ্য নয়ঃ লিবিয়ার সেনাবাহিনী

তারাবলুস|


যুদ্ধ বিরতির প্রস্তাব গ্রহণযোগ্য নয় বলে ঘোষণা দিয়েছে লিবিয়ার সেনাবাহিনী। গতকাল একটি বিবৃতিতে বিষয়টি ঘোষণা করেছেন লিবিয়ার সেনাবাহিনীর মুখপাত্র মুহাম্মাদ কানূনু। এসংবাদ জানিয়েছে ওকালাতু আনবা’য়ি তুরকিয়া।

লিবিয়ার সেনাবাহিনী ‘যুদ্ধবিরতির’ বিষয়টি খারিজ করে দিয়েছে। গতকাল অর্থাৎ শনিবার রাশিয়া সমর্থিত ওয়াগনার সন্ত্রাসিদল কর্তৃক লিবিয়ার তৈল ক্ষেত্রগুলি দখলের বিষয়ে আলোচনার সময় লিবিয়ার সেনাবাহিনীর মুখপাত্র মুহাম্মাদ কানূনু এবিষয়ে ঘোষণা করেছেন।‌ তিনি বলেন, “সিরত শহরটি ভাড়াটে গুন্ডাদের কেন্দ্রস্থলে পরিণত হয়েছে।” যুদ্ধবিরতি ‘গ্রহণযোগ্য নয়’ বলে ঘোষণা দিয়ে তিনি বলেন, “আমরা এই যুদ্ধ শুরু করি নাই। কিন্তু আমরা হলাম তারা যারা তার (যুদ্ধের) সমাপ্তির সময় ও স্থান নির্ধারণ করবে।”

তিনি এদিন জানিয়েছেন যে সিরত ও আল জুফরা সন্ত্রাসিদের থেকে দখল ও লিবিয়া থেকে রুশ সন্ত্রাসিদের বিতাড়নের বিষয়টি অতীত হওয়া সময়ের থেকে অধিক জরুরি হয়ে পড়েছে এবং লিবিয়ার সেনাবাহিনী এবিষয়ে প্রতিজ্ঞ। তিনি আরো জানান যে, এটা যদি শান্তিপূর্ণ ভাবে হয় লিবিয়ার সেনাবাহিনী সেটা করবে আর যদি অস্ত্রের প্রয়োজন হয় সেক্ষেত্রেও লিবিয়ার সেনাবাহিনী প্রস্তুত।

তিনি এদিন রুশ ওয়াগনার সন্ত্রাসিদের বিষয়ে তিনি বলেন যে, “তারা আঞ্চলিক ও আন্তর্জাতিক নিরাপত্তার ক্ষেত্রে হুমকি তৈরি করছে।”

উল্লেখ্যঃ লিবিয়ার রাজধানী তারাবলুস বা ত্রিপোলি সন্ত্রাসী মুক্ত করার পর লিবিয়ার সেনাবাহিনী ‘বিজয়ের পথ’ অভিযান শুরু করছে। গত শুক্রবার লিবিয়ার সেনাবাহিনী সিরত দখলের প্রস্তুতি সম্পন্ন করেছে বলে জানিয়েছে লিবিয়ার বুরকান উল গজব অপারেশন রুম।


© টি আর টি বাংলা ডেস্ক