ইয়েমেন বিভাজনের ষড়যন্ত্র দেখেও সরকারের নিরবতা, পদত্যাগ করলেন ইয়েমেনের শিল্প ও বানিজ্যমন্ত্রী

সান’আ|


দিন দিবালোকে ইয়েমেন বিভাজনের ষড়যন্ত্র করছে আরব জোটের অন্তর্ভুক্ত কিছু ষড়যন্ত্রী দেশ। অথচঃ তা দেখেও নিরব ইয়েমেনের সৌদি সমর্থিত সরকার। এর প্রতিবাদে পদত্যাগ করলেন ইয়েমেনের শিল্প ও বানিজ্যমন্ত্রী মুহাম্মাদ আল মাইতামী। এসংবাদ জানিয়েছে আনাদোলু এজেন্সি।

গত রবিবার ইয়েমেনের রাষ্ট্রপতি আব্দু রব্বিহী মনস্বূর হাদীর কাছে পদত্যাগপত্র জমা দিয়েছেন ইয়েমেনের শিল্প ও বানিজ্যমন্ত্রী। ইয়েমেনে আরব আমিরশাহী সমর্থিত বিদ্রোহীরা সকোত্রা দ্বীপের আরখবীল অঞ্চল দখল করে উক্ত অঞ্চলের পলাতক গভর্নরের অফিসে আরব আমিরশাহীর পতাকা উড়িয়ে দেয়। এর দুইদিন পরেই আল মাইতামী পদত্যাগপত্র জমা দিয়েছেন।

আল মাইতামী জানিয়েছেন যে তাঁর পদত্যাগ হল সশস্ত্র বিদ্রোহীদের দেশের বিরুদ্ধে অভ্যুত্থান ও ইয়েমেনের বিভাজনের জন্য কার্যকলাপের বিরুদ্ধে তাঁর অবস্থানের বহিঃপ্রকাশ।তিনি অভিযোগ করেন যে, আরব জোটের কিছু আঞ্চলিক দেশ দিনেদুপুরে ইয়েমেন বিভাজনের ষড়যন্ত্র করছে।

তিনি জানান যে, ২০১৪ সালে মন্ত্রিত্ব পদ গ্রহণের পর থেকে তিনি শপথের প্রতি যতটা সম্ভব বিশ্বস্ততা দেখিয়ে এসেছেন। তিনি ইয়েমেনে বর্তমান চলমান ঘটনাপ্রবাহকে ‘কষ্টকর’ ও ‘দুঃখজনক’ হিসেবে বর্ণনা করেছেন।

উল্লেখ্যঃ ২০১৪ সালে ইয়েমেনে ইরান সমর্থিত শিয়া হুথী সন্ত্রাসিরা ইয়েমেনের বেশ কিছু অঞ্চলে সন্ত্রাসি কার্যক্রম শুরু করে। এরপর ২০১৫ সালে সৌদি আরবের নেতৃত্বে এ আরবজোট ইয়েমেন দখল করে। কিন্তু ২০২০ সালের ২৬ এপ্রিল আমিরাত জোট সকোত্রা দ্বীপের বিদ্রোহ করে দক্ষিণী ট্রানজিশানাল সরকার গঠন করে।

আমাদের টি আর টি বাংলার সংবাদদাতা মুহাম্মাদ ইয়াসির আরাফাত মল্লিক জানিয়েছেন, ইসরাইলের সহায়তায় আরব আমিরাত ইয়েমেনকে দুইভাগে বিভক্ত করার ষড়যন্ত্র শুরু করেছে। তিনি বলেন, ইয়েমেনকে বিভক্ত করার ষড়যন্ত্র বহুদিন ধরে চলছিল যা ২০১৯ সালে আরব আমিরাতের রাজনীতি বিশ্লেষক আব্দুল খালেক ও ইসরাইলের রাজনৈতিক বিশ্লেষক ইদী কোহেনের টুইটবার্তায় প্রকাশ হয়ে পড়ে।

এদিকে একটি ইসরাইলী পত্রিকা দাবি করেছে যে, ইসরাইল আরব আমিরাতের সমর্থিত সরকারের সাথে গোপন সম্পর্ক রক্ষা করে চলেছে।


©টি আর টি বাংলা ডেস্ক