মুসলিম সেনাপতি খালিদ বিন ওয়ালিদ এর নামে কাতারে সামরিক ঘাঁটি করছে তুরস্ক। | TRT Bangla
Home আন্তর্জাতিক মুসলিম সেনাপতি খালিদ বিন ওয়ালিদ এর নামে কাতারে সামরিক ঘাঁটি করছে তুরস্ক।

মুসলিম সেনাপতি খালিদ বিন ওয়ালিদ এর নামে কাতারে সামরিক ঘাঁটি করছে তুরস্ক।

0
মুসলিম সেনাপতি খালিদ বিন ওয়ালিদ এর নামে কাতারে সামরিক ঘাঁটি করছে তুরস্ক।

কাতারে নবনির্মিত তুর্কি সামরিক ঘাঁটি সম্পর্কে তুর্কি রাষ্ট্রপতি রজব তাইয়্যেব এরদোগান বলেছেন, কাতারে তুর্কির সামরিক ঘাঁটি কাজ সম্প্রতি শেষ হয়েছে। এটাকে বিখ্যাত মুসলিম কমান্ডার খালিদ বিন ওয়ালিদ নামে নামকরণ করা হবে।

তিনি বলেন, তুরস্ক কখনো কারো হুমকি ও কোনো ঝুঁকির ভয় পায় না। তারা কখনো কোনো মুসলিম দেশের সাথে বন্ধুত্ব ত্যাগ করবে না।

সোমবার (২৫ নভেম্বর) কাতারে নবনির্মিত একটি ঘাঁটিতে তুর্কি সেনাদের সঙ্গে বৈঠকের পর তিনি এসব কথা বলেন।

এরদোগান বলেন, কাতারে তুর্কি সামরিক ঘাঁটি ভ্রাতৃত্ব, বন্ধুত্ব, সংহতি ও আন্তরিকতার প্রতীক। এটা উপসাগরীয় অঞ্চলের স্থিতিশীলতা ও শান্তি বজায় রাখবে। মুসলিমদের শক্তি বৃদ্ধি করবে।

তিনি এ সফরে কাতারের আমির শেখ তামিম বিন হামাদ আল-থানির সাথে বৈঠকে অংশ নেন। মুসলিম বিশ্বের এ দুই রাষ্ট্রপ্রধান বৈঠকে দ্বিপাক্ষিক বাণিজ্যসহ আঞ্চলিক ও আন্তর্জাতিক নানা বিষয় নিয়ে আলোচনা করেন। দুই শীর্ষ নেতার উপস্থিতিতে আট চুক্তিতে স্বাক্ষর করেন উভয় দেশের পররাষ্ট্রমন্ত্রীরা। দ্বিপাক্ষিক সম্পর্ক, অর্থনীতি, নগরায়ন, বাণিজ্য, শিল্প, প্রযুক্তি ও মান নির্ধারণের মতো বিষয়গুলোতে এসব চুক্তি স্বাক্ষরিত হয়।

প্রসঙ্গত, ২০১৯ সালের জানুয়ারিতে কাতারে নিযুক্ত তুর্কি রাষ্ট্রদূত বলেন, তুর্কি সৈন্যর পাশাপাশি ভবিষ্যতে তারা কাতারে বিমান ও নৌবাহিনীও মোতায়েন করবে। নবনির্মিত এই ঘাঁটিতে পাঁচ হাজার তুর্কি সেনা বর্তমানে মোতায়ন রয়েছে বলে জানা গেছে।

বর্তমানে তুরস্কে কাতারের বিনিয়োগের পরিমাণ ২৩ বিলিয়ন মার্কিন ডলার। আর কাতারে তুরস্কের বিনিয়োগের পরিমাণ ১৬ বিলিয়ন ডলার। কাতারে তুর্কি মালিকানাধীন কোম্পানির সংখ্যা ২৬টি। তবে কাতার-তুরস্ক যৌথ মালিকানায় পরিচালিত কোম্পানির সংখ্যা ২৪২ ছাড়িয়েছে।

এছাড়া কাতারে ৮২ মিলিয়ন মার্কিন ডলার ব্যয় করে নির্মাণ করা হচ্ছে তুর্কি হাসপাতাল। অন্যদিকে তুরস্কে কেবল ২০১৮ সালে ৭৬৪ টি আবাসিক প্লট কিনেছেন কাতারের নাগরিকরা। প্রায় ৯৭ হাজার কাতারি নাগরিক শুধু গতবছর তুরস্ক ভ্রমণ করেছেন, যার ফলে দেশটির পর্যটন খাত প্রতিনিয়ত সমৃদ্ধ হচ্ছে।

আপনাদের প্রিয় ওয়েবসাইট TRT Bangla এন্ড্রয়েড এপ্স লঞ্চ করেছে। প্রত্যেকে নিজের মোবাইলে ইন্সটল করতে ছবিতে ক্লিক করুন।
TRT Bangla

FREE
VIEW