৩ সাপ্তাহ পর বাংলাদেশির লাশ ফেরত দিল ভারতের বিএসএফ।

ভারতীয় সীমান্তরক্ষী বাহিনী (বিএসএফ)’র গুলিতে নিহত হওয়ার ২২ দিন পর এক বাংলাদেশির লাশ ফেরত দেয়া হয়েছে। রবিবার (২৪ নভেম্বর) রাত পৌনে ১০ টায় বিজিবি-বিএসএফের এক পতাকা বৈঠকের মাধ্যমে তার লাশ ফেরত দেওয়া হয়। লাশ ফেরত দেয়ার সময় নিহতের স্বজনরা ও এলাকার ব্যক্তিবর্গরা উপস্থিত ছিলেন।

আবদুর রহিম (৫০) নামের নিহত ওই ব্যক্তির বাড়ি ঝিনাইদহের মহেশপুর উপজেলার সেজিয়া ইউনিয়নের বাউলিয়া গ্রামে। তার বাবার নাম আবুল কাসেম। জানা যায়, গরু আনতে গেলে ভারতের হাবাশপুর এলাকার ৬০ নম্বর মেইন পিলারের পাশে তাকে গুলি করে হত্যা করে বিএসএফ।

এর আগে তার লাশ ফেরত পেতে বিজিবি কয়েক দফায় বিএসএফের সঙ্গে যোগাযোগ করে। কিন্তু এতদিনে কোনো সাড়া পাওয়া যায়নি। অবশেষে আজ মহেশপুর সীমান্তের পলিয়ানপুর এলাকায় পতাকা বৈঠকের মাধ্যমে তার লাশ ফেরত দেয়া হয়েছে।

এর আগে মহেশপুরের খালিশপুর ৫৮ বিজিবি অধিনায়ক লে. কর্নেল কামরুল আহসান বলেন, ৩ নভেম্বর রাতে কয়েকজনকে সঙ্গে নিয়ে নিহত আবদুর রহিম ভারতে গরু আনতে যান। গরু নিয়ে ফেরার পথে বিএসএফ গুলি চালালে তিনি নিহত হন। অন্য একটি সূত্র জানায়, ভারতের অভ্যন্তরে গরুসহ রহিমকে ধরে ফেলে বিএসএফ। এরপর তাকে গুলি করে হত্যা করা হয়।