সিরত ও জুফরা থেকে সন্ত্রাসিদের প্রত‍্যাহারের পূর্বে কোনো যুদ্ধবিরতি নয়ঃ তুরস্ক

ত্বরবলুস(ত্রিপোলি)|


সিরত ও আল জুফরা থেকে সন্ত্রাসি প্রত‍্যাহারের পূর্বে কোনো প্রকার যুদ্ধবিরতি গ্রহণযোগ্য নয় বলে স্পষ্ট জানিয়ে দিল তুরস্ক। লিবিয়ার তৈল সমৃদ্ধ শহর সিরত ও আল জুফরাকে যুদ্ধবিরতির শর্ত হিসেবে ঘোষণা দিয়েছে তুরস্ক। এসংবাদ জানিয়েছে ওকালাতু আনবা’য়ি তুরকিয়া।

সাম্প্রতিক ব্রিটেনের ফাইন্যান্সিয়াল টাইমস নামক একটি পত্রিকা ৮ জুলাই তুরস্কের পররাষ্ট্রমন্ত্রী মাওলূদ জাউইশোগলুর লন্ডন সফরকালীন তাঁর সাথে একটি ইন্টারভিউ প্রকাশ করেছে। এর শিরোনামে টাইমস লিখেছে ” তুরস্ক বলছে হফতারের যতক্ষণ না প্রত‍্যাহার করছে ততক্ষণ কোনো চুক্তি নয়।”

উক্ত পত্রিকা আরো জানিয়েছে যে, তুরস্কের পররাষ্ট্রমন্ত্রী মাওলূদ জাউইশোগলু জানিয়েছেন, হফতার লিবিয়ার উপকূলীয় সিরত ও আল জুফরা যতক্ষণ না ছাড়বে ততক্ষণ অভিযান চালিয়ে যেতে প্রতিজ্ঞ লিবিয়ার সরকার।

তিনি এদিন জানিয়েছেন যে, রাশিয়া সাম্প্রতিক তুরস্কের ইস্তাম্বুলে দূত মারাফত চুক্তির অনুরোধ করেছে। তুরস্ক এই অনুরোধের পর উপরোক্ত শর্ত রেখেছে। তুরস্ক সাফ জানিয়ে দিয়েছে যে, চুক্তির শর্ত হল সন্ত্রাসি হফতারকে সিরত ও আল জুফরা ছেড়ে ২০১৫ সালে স্বাক্ষরিত সীমানার বাইরে যেতে হবে।

উল্লেখ্য গত ২০১১ সালে গদ্দাফীর পতনের পর লিবিয়াতে ইসলামপন্থী সরকার গঠিত হলে আরবের কিছু স্বৈরাচারী শাসক ও পশ্চিমা ষড়যন্ত্রীদের সহায়তায় সন্ত্রাসি হফতার দেশটিকে ধ্বংসের মুখে ঠেলে দিয়েছে। এরপর ২০২০ সালে তুরস্ক সমর্থিত লিবিয়ার সেনাবাহিনী সন্ত্রাসিদের বিরুদ্ধে অভিযান শুরু করে।


© টি আর টি বাংলা ডেস্ক

 35 total views,  2 views today

Start Blogging

Register Here


Registered?

Login Here

Leave a Comment

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.